ব্লগবিডি.কম https://www.vlogbd.com/2022/07/blog-post_86.html

গোপালগঞ্জ জেলার দর্শনীয় স্থান, ইতিহাস ও ঐতিহ্য


গোপালগঞ্জ জেলা,বাংলাদেশের মধ্যাঞ্চলের উল্ল্যেখযোগ্য,ঢাকা বিভাগের প্রশাসনিক অঞ্চল।

গোপালগঞ্জ জেলা,বাংলাদেশের মধ্যাঞ্চলের উল্ল্যেখযোগ্য,ঢাকা বিভাগের প্রশাসনিক অঞ্চল। গোপালগঞ্জ জেলার দর্শনীয় স্থান,টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধি কমপ্লেক্সে। চন্দ্রা ভর্মা ফোট(কোটাল দুর্গ),হরিনাহাটি জমিদারবাড়ি,উজানির জমিদারবাড়ি, মধুমতীনদী,উলপুর জমিদারবাড়ি,ছোটবনগ্রাম জমিদারবাড়ি,লেকপাড়,গোপালগঞ্জ সদর। গোপালগঞ্জ জেলার মানচিত্র,পূর্বে মাদারীপুর ও বরিশাল জেলা,দক্ষিণে পিরোজপুর  জেলা ও বাগেরহাট জেলাও খুলনা জেলা,উত্তরে ফরিদপুর জেলা,পশ্চিমে নড়াইল ও মাগুড়া জেলা অবস্থিত। গোপালগঞ্জ জেলার পরিচিতি ও নামকরণের ইতিহাস,গোপালগঞ্জ জেলা এক সময়  রামগঞ্জ নামে পরিচিত ছিল।গোপালগঞ্জ মাকিমপুর ষ্টেটের অধিনে ছিল,রাণী  রাসমণির মাকিমপুর ষ্টেটের জমিদারি পরিচালনা করতেন।রাসমণি ছিলেন  জেলে কন্যা,ব্রিটিশ সাহেবের প্রাণ রক্ষা করার ফলে উপহার স্বরুপ  ইংরেজরা তাকে গোপালগঞ্জ অঞ্চলের সম্পূর্ণ জমিদারীর দ্বায়িত্ব বুজিয়ে দেন। রাসমণির একজন নাতি ছিল,রাসমণির নাতির  নাম অনুসারে গোপালগঞ্জ জেলার নামকরণ করা হয়। গোপালগঞ্জ জেলার ইতিহাস,গোপালগঞ্জ জেলায় প্রথম বসতি স্থাপন করেন হিন্দুধর্মালম্বীরা। অঞ্চল টি বল্লাল সেনের অধিনে ছিল(১১০৯-১১৭৯)খ্রিষ্টাব্দ। গোপালগঞ্জ জেলা হিসের জন্য বিখ্যাত বাদাম,পাট,তরমুজের জন্য বিখ্যাত। এক নজরে গোপালগঞ্জ জেলা  গোপালগঞ্জ জেলার উপজেলা কয়টি? ৫টি উপজেলা। গোপালগঞ্জ জেলার উপজেলা সমূহের নাম? গোপালগঞ্জ জেলায় ৫টি উপজেলা রয়েছে,উপজেলা গুলো হল, গোপালগঞ্জ সদর,কাশিয়ানী উপজেলা,মুকসদপুর উপজেলা, কোটালিপাড়া উপজেলা,টুঙ্গিপাড়া উপজেলা। গোপালগঞ্জ জেলার থানা কয়টি?  গোপালগঞ্জ জেলায় ৫টি থানা রয়েছে। গোপালগঞ্জ জেলার থানা সমুহের নাম কী? গোপালগঞ্জ জেলায় ৫টি থানা রয়েছে,থানা সমুহের নাম গুলো হল। গোপালগঞ্জ সদর,কাশিয়ানী,কোটালিপাড়া, মাকসুদপুর,টুঙ্গিপাড়া. গোপালগঞ্জ জেলার  পৌরসভা কয়টি? গোপালগঞ্জ জেলার পৌরসভা ৩টি। গোপালগঞ্জ জেলার পৌরসভা সমুহের নাম কী? গোপালগঞ্জ জেলার পৌরসভা ৩টি নাম গুলো হল,গোপালগঞ্জ,কোটালিপাড়া,টুঙ্গিপাড়া, মুকসুদপুর। গোপালগঞ্জ জেলার সংসদীয় আসন কতটি? সংসদীয় আসন ৩টি। গোপালগঞ্জ জেলার সংসদীয় আসনের নাম কী নির্বাচনী এলাকা  জাতীয় সংসদের নির্বাচনী এলাকার নাম সমুহ। ২১৫ গোপালগঞ্জ-১ মুকসদপুর উপজেলা এবং কাশিয়ানী উপজেলার ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত। ২১৬ গোপালগঞ্জ-২ গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা এবং কাশিয়ানী উপজেলার সিংগা ইউনিয়ন,হাতিয়াড়া ইউনিয়ন,পুইশুর ইউনিয়ন,বেথুড়ী ইউনিয়ন,নিজামকান্দি ইউনিয়ন,ওড়াকান্দি ইউনিয়ন ও ফুকরা ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত। ২০১৭ গোপালগঞ্জ-৩ টুঙ্গিপাড়া উপজেলা এবং কোটালিপাড়া উপজেলা।  নদ-নদী-গোপালগঞ্জ জেলার,মধুমতি,বাঘিয়ার,ঘাঘর,পুরাতন কুমার,বিলরুট,ক্যানেল, কালিগঙ্গা,টঙ্গীখাল,দিগনার,বাগদা,কুশিয়ারা,মধুপুর,শৈলদহ,ছন্দা। গোলাপগঞ্জ জেলার অর্থনীতি? গোপালগঞ্জ জেলার কৃষি নির্ভরশীল একটি জেলা।এ জেলায় ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্পের কারখানা রয়েছে। কৃষি ও কুটির শিল্প. গোপালগঞ্জ জেলার ফসলাদি কী? ধান,পাট,তরমুজ,আখঁ,আউশ ধান. গোপালগঞ্জ জেলার আয়তন কত? ১৪৮৯বর্গকিলোমিটার। গোলাপগঞ্জর জেলার লোকসংখ্যা কত? ১১,৭২,৪১৫ জন. গোপালগঞ্জ জেলায় কোন ধর্মের কত জন বসবাস করে। ইসলাম ধর্ম৭৩.৬২% হিন্দু ধর্ম২৫.১৩% খ্রিষ্টান ধর্ম ১.২০% অন্যান্য ধর্ম ০.০২% গোপালগঞ্জ জেলার শিক্ষার হার কত? ৫৮.১% গোপালগঞ্জ জেলা কত সালে প্রতিষ্টিত হয়  গোপালগঞ্জ জেলা ১৯৮৪ সালে প্রতিষ্টিত হয়। গোপালগঞ্জ জেলার মৌজা কয়টি আছে? ৬৫৩ টি গোপালগঞ্জ জেলা কোন বিভাগে অবস্থিত? ঢাকা বিভাগের একটি জেলা গোপালগঞ্জ। গোপালগঞ্জ জেলার মোট আয়তন কত? মোট আয়তন ১৪,৮৯,৯২বর্গ কিলোমিটার। গোপালগঞ্জ জেলার মোট জনসংখ্যা কত? ১১,৭২,৪১৫ জন. জনসংখ্যার ঘনত্ব কত? ৮০০/বর্গ কিঃমি(২১০০/বর্গমাইল) গোপালগঞ্জ জেলায় ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী গুলোর নাম কী? রাজবংশী,বর্মণ। গোপালগঞ্জ জেলার বিশেষ উৎসব কী কী? নৌকা বাইচ,শুকান্ত মেলা,বারুনী স্নান উৎসব। গোপালগঞ্জ জেলায় ইউনিয়ন কয়টি আছে?  ৬৭টি  গোপালগঞ্জ জেলা নদী পৃষ্ট থেকে  ভূপ্রকৃতি:সমুদ্র বিষ্ট থেকে ২৫-৩০ফুট উচু।  এবং নিচু অংশ ১৪-১৬ফুট উচ্চে অবস্থিত। গোপালগঞ্জ জেলার শিক্ষার হার কত? ৫৮.১% গোপালগঞ্জ জেলা  কোড কত? ৩০৩৫. গোপালগঞ্জ জেলার রপ্তানি পণ্য কী? পাট ও তরমুজ.


গোপালগঞ্জ জেলার দর্শনীয় স্থান,টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধি কমপ্লেক্সে।
চন্দ্রা ভর্মা ফোট(কোটাল দুর্গ),হরিনাহাটি জমিদারবাড়ি,উজানির জমিদারবাড়ি,
মধুমতীনদী,উলপুর জমিদারবাড়ি,ছোটবনগ্রাম জমিদারবাড়ি,লেকপাড়,গোপালগঞ্জ সদর।

গোপালগঞ্জ জেলার মানচিত্র,পূর্বে মাদারীপুর ও বরিশাল জেলা,দক্ষিণে পিরোজপুর 
জেলা ও বাগেরহাট জেলাও খুলনা জেলা,উত্তরে ফরিদপুর জেলা,পশ্চিমে নড়াইল ও মাগুড়া জেলা অবস্থিত।
গোপালগঞ্জ জেলার পরিচিতি ও নামকরণের ইতিহাস,গোপালগঞ্জ জেলা এক সময় 
রামগঞ্জ নামে পরিচিত ছিল।গোপালগঞ্জ মাকিমপুর ষ্টেটের অধিনে ছিল,রাণী 
রাসমণির মাকিমপুর ষ্টেটের জমিদারি পরিচালনা করতেন।রাসমণি ছিলেন 
জেলে কন্যা,ব্রিটিশ সাহেবের প্রাণ রক্ষা করার ফলে উপহার স্বরুপ
 ইংরেজরা তাকে গোপালগঞ্জ অঞ্চলের সম্পূর্ণ জমিদারীর দ্বায়িত্ব বুজিয়ে দেন।
রাসমণির একজন নাতি ছিল,রাসমণির নাতির 
নাম অনুসারে গোপালগঞ্জ জেলার নামকরণ করা হয়।
গোপালগঞ্জ জেলার ইতিহাস,গোপালগঞ্জ জেলায় প্রথম বসতি স্থাপন করেন হিন্দুধর্মালম্বীরা।
অঞ্চল টি বল্লাল সেনের অধিনে ছিল(১১০৯-১১৭৯)খ্রিষ্টাব্দ।

গোপালগঞ্জ জেলা হিসের জন্য বিখ্যাত
বাদাম,পাট,তরমুজের জন্য বিখ্যাত।
এক নজরে গোপালগঞ্জ জেলা 
গোপালগঞ্জ জেলার উপজেলা কয়টি?
৫টি উপজেলা।
গোপালগঞ্জ জেলার উপজেলা সমূহের নাম?
গোপালগঞ্জ জেলায় ৫টি উপজেলা রয়েছে,উপজেলা গুলো হল,
গোপালগঞ্জ সদর,কাশিয়ানী উপজেলা,মুকসদপুর উপজেলা,
কোটালিপাড়া উপজেলা,টুঙ্গিপাড়া উপজেলা।
গোপালগঞ্জ জেলার থানা কয়টি? 
গোপালগঞ্জ জেলায় ৫টি থানা রয়েছে।
গোপালগঞ্জ জেলার থানা সমুহের নাম কী?
গোপালগঞ্জ জেলায় ৫টি থানা রয়েছে,থানা সমুহের নাম গুলো হল।
গোপালগঞ্জ সদর,কাশিয়ানী,কোটালিপাড়া,
মাকসুদপুর,টুঙ্গিপাড়া.
গোপালগঞ্জ জেলার  পৌরসভা কয়টি?
গোপালগঞ্জ জেলার পৌরসভা ৩টি।
গোপালগঞ্জ জেলার পৌরসভা সমুহের নাম কী?
গোপালগঞ্জ জেলার পৌরসভা ৩টি নাম গুলো হল,গোপালগঞ্জ,কোটালিপাড়া,টুঙ্গিপাড়া,
মুকসুদপুর।

গোপালগঞ্জ জেলার সংসদীয় আসন কতটি?
সংসদীয় আসন ৩টি।
গোপালগঞ্জ জেলার সংসদীয় আসনের নাম কী

নির্বাচনী এলাকা 

জাতীয় সংসদের নির্বাচনী এলাকার নাম সমুহ।

২১৫ গোপালগঞ্জ-১

মুকসদপুর উপজেলা এবং কাশিয়ানী উপজেলার ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত।

২১৬ গোপালগঞ্জ-২

গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা এবং কাশিয়ানী উপজেলার সিংগা ইউনিয়ন,হাতিয়াড়া ইউনিয়ন,পুইশুর ইউনিয়ন,বেথুড়ী ইউনিয়ন,নিজামকান্দি ইউনিয়ন,ওড়াকান্দি ইউনিয়ন ও ফুকরা ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত।

২০১৭ গোপালগঞ্জ-৩

টুঙ্গিপাড়া উপজেলা এবং কোটালিপাড়া উপজেলা।

নদ-নদী-গোপালগঞ্জ জেলার,মধুমতি,বাঘিয়ার,ঘাঘর,পুরাতন কুমার,বিলরুট,ক্যানেল,

কালিগঙ্গা,টঙ্গীখাল,দিগনার,বাগদা,কুশিয়ারা,মধুপুর,শৈলদহ,ছন্দা।

গোলাপগঞ্জ জেলার অর্থনীতি?

গোপালগঞ্জ জেলার কৃষি নির্ভরশীল একটি জেলা।এ জেলায় ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্পের কারখানা রয়েছে।

কৃষি ও কুটির শিল্প.

গোপালগঞ্জ জেলার ফসলাদি কী?

ধান,পাট,তরমুজ,আখঁ,আউশ ধান.

গোপালগঞ্জ জেলার আয়তন কত?

১৪৮৯বর্গকিলোমিটার।

গোলাপগঞ্জর জেলার লোকসংখ্যা কত?

১১,৭২,৪১৫ জন.

গোপালগঞ্জ জেলায় কোন ধর্মের কত জন বসবাস করে।

ইসলাম ধর্ম৭৩.৬২%

হিন্দু ধর্ম২৫.১৩%

খ্রিষ্টান ধর্ম ১.২০%

অন্যান্য ধর্ম

০.০২%

গোপালগঞ্জ জেলার শিক্ষার হার কত?

৫৮.১%

গোপালগঞ্জ জেলা কত সালে প্রতিষ্টিত হয় 

গোপালগঞ্জ জেলা ১৯৮৪ সালে প্রতিষ্টিত হয়।

গোপালগঞ্জ জেলার মৌজা কয়টি আছে?

৬৫৩ টি

গোপালগঞ্জ জেলা কোন বিভাগে অবস্থিত?

ঢাকা বিভাগের একটি জেলা গোপালগঞ্জ।

গোপালগঞ্জ জেলার মোট আয়তন কত?

মোট আয়তন ১৪,৮৯,৯২বর্গ কিলোমিটার।

গোপালগঞ্জ জেলার মোট জনসংখ্যা কত?

১১,৭২,৪১৫ জন.

জনসংখ্যার ঘনত্ব কত?

৮০০/বর্গ কিঃমি(২১০০/বর্গমাইল)

গোপালগঞ্জ জেলায় ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী গুলোর নাম কী?

রাজবংশী,বর্মণ।

গোপালগঞ্জ জেলার বিশেষ উৎসব কী কী?
নৌকা বাইচ,শুকান্ত মেলা,বারুনী স্নান উৎসব।
গোপালগঞ্জ জেলায় ইউনিয়ন কয়টি আছে?
 ৬৭টি 
গোপালগঞ্জ জেলা নদী পৃষ্ট থেকে 
ভূপ্রকৃতি:সমুদ্র বিষ্ট থেকে ২৫-৩০ফুট উচু। 
এবং নিচু অংশ ১৪-১৬ফুট উচ্চে অবস্থিত।
গোপালগঞ্জ জেলার শিক্ষার হার কত?
৫৮.১%
গোপালগঞ্জ জেলা  কোড কত?
৩০৩৫.
গোপালগঞ্জ জেলার রপ্তানি পণ্য কী?
পাট ও তরমুজ.

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?